Dhaka Bank E RIN APP । ঢাকা ব্যাংক থেকে ঘরে বসেই ব্যক্তিগত ঋণ পাওয়া যাবে?

ব্যাংক ঋণ নিবেন একাউন্ট থাকবে না? অবশ্যই আপনাকে প্রথমে সঞ্চয়ী হিসাব খুলতে হবে এবং সঞ্চয়ী হিসাব সচল হলেই আপনি মোবাইল ফোনেই ঋণ পাবেন- Dhaka Bank E RIN APP

ইঋন কি এবং এটি কিভাবে কাজ করে? আপনার ইচ্ছামত কেনাকাটা করা, ছুটি কাটানো বা চিকিৎসা বা জরুরী আর্থিক প্রয়োজন মেটানোর জন্য, ইঋণে আস্থা রাখুন। ইঋণ হচ্ছে ঢাকা ব্যাংক থেকে দ্রুত ব্যক্তিগত ঋণ (https://www.dhakabankltd.com) যা আপনাকে সময়মতো আপনার প্রয়োজন মেটাতে সহায়তা করে।

ইঋন, ঢাকা ব্যাংক লিমিটেডের একটি অত্যাধুনিক প্রযুক্তি সেবা, যা একটি সহজ অথচ শক্তিশালী অ্যাপের মাধ্যমে বেতনভোগী ব্যক্তি, স্বল্প আয় সম্পন্ন ব্যক্তি, পেশাদারদের স্বল্পমেয়াদী ব্যক্তিগত ঋণ পেতে সক্ষম করে। দ্য সোশ্যাল লোন কোশন্ট (এসএলকিউ) নামে একটি ভবিষ্যদ্বাণীমূলক অ্যালগরিদম দ্বারা চালিত যা প্রচলিত ব্যাংক এবং ক্রেডিট এজেন্সিগুলির থেকে সম্পূর্ণ আলাদা গ্রাহকদের একটি পরিশীলিত ক্রেডিট প্রোফাইল তৈরি করে। ইঋণ অল্প বয়স্ক ব্যক্তিদের কাগজপত্র এবং ঝামলো ছাড়াই স্বল্প সময়ের মধ্যে ঋণ পেতে সক্ষম করে। আপনি ১,০০০ টাকা থেকে ৫০,০০০ টাকা আপনার প্রয়োজনের ভিত্তিতে ৩/৬ মাসের জন্য লোন পেতে পারেন। আপনার যা দরকার তা হল একটি বেতন স্লিপ/আয়ের প্রমান, ব্যাংক স্টেটমেন্ট, এনআইডি কার্ড এবং ঠিকানা প্রমাণ এবং এগুলো ইঋণ অ্যাপের মাধ্যমে আপলোড করা। একটি ব্যাংক র্কায দিবসে ২ ঘন্টার মধ্যে আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ইঋণ এর টাকা প্রদান করা হবে।

ইঋন কোন ঋণ পণ্য অফার করে? ইঋন একটি ব্যাক্তগিত ঋণ যা ১,০০০ টাকা থেকে শুরু করে ৫০,০০০ টাকা ৩ মাস ও ৬ মাসের হতে পারে। আপনি ৩/৬ মাসের ঋণ বেছে নিতে পারেন যা আপনাকে তিন/ছয় সমান মাসিক কিস্তিতে পরিশোধ করতে হবে। ৩/৬ মাসের পরিকল্পনায়, আপনি ১,০০০ টাকা থেকে ৫০,০০০ টাকা র্পযন্ত যে কোন পরমিান (১,০০০ টাকা এবং তার গুনতিক) ঋণ নিতে পারেন।

কে ইঋণ এর জন্য আবেদন করতে পারেন? বাংলাদেশে বসবাসকারী যে কোনো বাংলাদেশী নাগরিক, ২১ বছরের বেশি বয়সী, বর্তমান কর্মসংস্থানের প্রমাণ সহ, যিনি মাসিক ১০,০০০টাকা বা তার বেশি বেতন পান বা আয় করেন, যার একটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট, একটি ফেসবুক/গুগল অ্যাকাউন্ট, বৈধ পরিচয়প্ত্র এবং ঠিকানার প্রমাণ (ইউটিলিটি বিলের কপি) আছে তিনি ঋণ পেতে ইঋন অ্যাপ ব্যবহার করতে পারেন।

তথ্য যাচাইকরণ প্রক্রিয়া কি?  এনআইডি কার্ড ইলেকট্রনিকভাবে নির্বাচন কমিশনের ডেটাবেস থেকে যাচাই করা হবে যাতে এনআইডি নম্বর এবং সংশ্লষ্টি নামের শুদ্ধতা নিশ্চিত করা যায়। ঠিকানা যাচাই করতে পাসপোট/ ইউটিলিটি বিল/টএিনটি ফোন বিল/হোল্ডিং ট্যাক্স ব্যবহার করা হবে।ঋণগ্রহীতা ইঋণ অ্যাপে ইলেকট্রনিকভাবে তার সেলফি আপলোড করবেন (গ্রাহকের নিজের ছবি সরাসরি তোলা হচ্ছে নিশ্চিত করতে চোখের পলক ফেলতে হবে)। আপনার সি আই বি চেক করা হবে। অত্র বিষয়ে আরও তথ্যের জন্য আপনি erininfo@dhakabank.com.bd -এ আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন।

E ঋণ app । ঢাকা ব্যাংক পার্সোনাল লোন । Dhaka Bank e rin । E rin app ।  ঢাকা ব্যাংক হোম লোন । Erin Dhaka Bank app download । ই লোন বাংলাদেশ

ইঋনের জন্য আবেদন করার জন্য কোন ডিভাইস/প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করা যেতে পারে? উক্ত ইঋন একটি মোবাইল অ্যাপ এবং এই অ্যাপটি স্মার্ট ডিভাইসে কাজ করে। https://play.google.com/store/apps/details?id=com.tslcglobal.cashebd&hl=en_US

Dhaka Bank E RIN APP । ঢাকা ব্যাংক হতে ঘরে বসেই ব্যক্তিগত ঋণ পাওয়া যাবে?

Caption: Dhaka Bank E RIN APP

ডকুমেন্টেশন এবং রেফারেন্স । ই লোন নিতে যে সকল কাগজপত্র জমা দিতে হবে?

  1. ঋনের জন্য আবেদন করার যোগ্য হতে আপনার একটি বৈধ সামাজিক মিডিয়া অ্যাকাউন্ট যেমন গুগল / ফেসবুক থাকতে হবে।
  2. শুধু এই ৪টি মৌলিক নথি আপলোড করুন এবং আপনি ইঋনের মাধ্যমে ক্রেডিট অনুমোদন পেতে পারেন।
  3. এনআইডি র্কাড।
  4. সর্বশেষ বেতন স্লিপ/ আয়ের প্রমান।
  5. আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্টের সর্বশেষ বিবৃতি, যা আপনার বেতন/ আয় ক্রেডিট প্রদর্শন করে।
  6. ঠিকানার প্রমাণ: যেকোনো একটি (১): ১। পাসপোট ২। ইউটিলিটি বিল যেমন ইলেকট্রিক/পানি/গ্যাস বিল (২ মাসের বেশি পুরোনো নয়), ৩। টএিনটি ফোন বিল বা ৪। হোল্ডিং ট্যাক্স। যদি বর্তমান ঠিকানা স্থায়ী ঠিকানা থেকে ভিন্ন হয়, তাহলে অতিরিক্ত যে কোনো একটিঃ ১। ইউটিলিটি বিল যেমন ইলেকট্রিক/পানি/গ্যাস বিল (২ মাসের বেশি পুরোনো নয়), ২।টএিনটি ফোন বিল বা ৩। ভাড়া চুক্তি।
  7. আমরা আপনাকে আপনার ফটোগ্রাফের প্রমাণ হিসাবে আপনার সেলফি আপলোড করতে বলব। আপনার তথ্য শুধুমাত্র অভ্যন্তরীণভাবে ব্যবহার করা হবে।
  8. উপরল্লিখিত নথিগুলি জেপিজি ফরম্যাটে নিজ স্বত্যায়নে আপলোড করুন। এছাড়াও, নিশ্চিত করুন যে আপনি অ্যাপে যে নথিগুলি আপলোড করেছেন তা স্পষ্টভাবে পাঠযোগ্য এবং নিজ কতৃক স্বত্যায়তি, যাতে আমরা আপনার ঋণের অনুরোধ দ্র্রুত প্রক্রিয়া করতে পারি।

কেন আমাকে আমার ফেসবুক / গুগল অ্যাকাউন্ট দিয়ে লগ ইন করতে হবে?

কারণ ইঋন এর লক্ষ্য হল ঋণ নেওয়ার প্রক্রিয়ায় বিপ্লব ঘটানো যেখানে আমরা সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে আপনার ইন্টারনেট উপস্থিতিকে একটি নির্ভরযোগ্য বেঞ্চমার্ক হিসেবে ব্যবহার করি যাতে আপনার ঋণযোগ্যতা মূল্যায়ন করা যায়। আপনার সামাজিক নেটওয়ার্কিং কার্যকলাপ আপনি কে, এবং আপনি আমাদের নীতির সাথে মানানসই কিনা সে সম্পর্কে মূল্যবান তথ্য প্রদান করে। এটি সহজ এবং আরও সুবিধাজনক হয়। আপনার নেটওয়ার্ক, পরিচিতি এবং কার্যকলাপের পরিপ্রেক্ষিতে আপনি কাকে অ্যাক্সেস লেভেল হিসেবে ব্যবহার করছেন তার একটি চিত্র পেতে ইঋণ চষ্টো করে। নিশ্চিন্ত থাকুন, কারণ কোনো অবস্থাতেই আপনার তথ্য আপনার অনুমতি ছাড়া তৃতীয় পক্ষের সাথে শেয়ার করা হবে না, অথবা আপনার ব্যক্তিগত তথ্য পুনব্যবহার করবে না। অনুগ্রহ পূর্বক আমাদের গোপনীয়তা নীতি পড়ুন।

আমাদের একাধিক ঋণ বিকল্প রয়েছে। আপনি ১,০০০ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ৫০,০০০ টাকা পর্যন্ত ব্যক্তিগত ঋণ ৩ মাস ও ৬ মাসে পরিশোধের মেয়াদ বেছে নিতে পারেন৷ আপনি শুধুমাত্র সাধারণ প্রশ্নের জন্য আমাদের ১৬৪৭৪ এ কল করতে পারেন। ঋণ পণ্য সম্পর্কিত যেকোনো প্রশ্নের জন্য অনুগ্রহ করে আমাদেরকে erininfo@dhakabank.com.bd এ ইমেল করুন, আমরা নিশ্চিত করব যে আপনি যত তাড়াতাড়ি সম্ভব উত্তর পেয়েছেন।

কোন জামানত লাগবে না? ঢাকা ব্যাংক একটি নিজস্ব ব্যবস্থা ব্যবহার করে আপনার ঋণযোগ্যতা নির্ধারণ করে এবং আপনার নথিগুলি নিশ্চিত করে যে আপনি একজন দায়িত্বশীল ঋণগ্রহীতা। চিন্তা করবেন না, এই তথ্য শুধুমাত্র অভ্যন্তরীণ ব্যবহারের জন্য। আপনার তথ্যের নিরাপত্তা আমাদের কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আরও তথ্যের জন্য, নির্দ্বিধায় আমাদের গোপনীয়তা নীতি পাঠ করুন। হ্যাঁ। আপনাকে একটি নাম মোবাইল নম্বর, এনআইডি নম্বর, পদবী সহ রেফারেন্স হিসেবে প্রদান করতে হবে। একেবারেই না। একবার আপনার নথিগুলি যাচাই করা হয়ে গেলে এবং আপনি অনুমোদিত হলে, আপনি আপনার নথিগুলি পুনরায় জমা না দিয়ে পরবর্তী ১ বছরের জন্য নশ্চিতি থাকতে পারেন। শুধুমাত্র ক্রেডিট তথ্য প্রতিবার চেক করা হবে। ইঋনের একটি এককালীন নিবন্ধন প্রক্রিয়া রয়েছে। আপনি একবার ইঋনের সাথে নিবন্ধন করলে এবং যোগ্যতা অর্জন করলে, বারবার নিবন্ধন না করে আপনি যতবার খুশি ততবার ঋন নিতে পারবেন। স্বস্তিতে থাকুন। আমরা আপনাকে বিশ্বাস করি। আমাদরে কোন জামানত প্রয়োজন নইে। শুধুমাত্র আমাদের আপনার সঠিক নথিগুলি প্রদান করুন যাতে আমরা আপনার যোগ্যতা নির্ধারণ করতে পারি।

আরও বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

নতুন মুদ্রানীতি ২০২৩ । তুলে দেওয়া হলো ব্যাংক আমানত ও ঋণের সুদসীমা কেন্দ্রীয় ব্যাংকই সরকারের ঋণের চাহিদা মেটাচ্ছে সহজ কিস্তিতে লোন ২০২৩ । ১ লক্ষ টাকা লোন নিতে চাই

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *