তেল উৎপাদনে শীর্ষ ১০ দেশ । তেল মজুদে শীর্ষ দেশ কোনটি?

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে বিশ্বে বিভিন্ন দেশ তেলের সমস্যায় পড়ছে-এক্ষেত্রে আমদানি নির্ভর দেশগুলো বেশি ভোগান্তিতে আছে – তেল উৎপাদনে শীর্ষ ১০ দেশ

বিশ্বের সবচেয়ে বড় তেলের খনি- বিশ্বের সবচেয়ে বড় তেলের খনি হল সৌদি আরবের ঘাওয়ার খনি। এটি বিশ্বের সর্বাধিক তেল উৎপাদনকারী দেশ হিসাবে পরিচিত। ২০২০ সালে, সৌদি আরব প্রায় ১১ মিলিয়ন ব্যারেল তেল প্রতিদিন উৎপাদন করেছে। এর পরবর্তী সম্ভাব্য খনি হল রাশিয়ার তিমান খনি এবং আমেরিকার পার্সেল খনি।

বিশ্বে সবচেয়ে বেশি তেল উৎপাদনকারী দেশ কোনটি? বিশ্বে সবচেয়ে বেশি তেল উৎপাদনকারী দেশ হলো রাশিয়া। ২০২১ সালের পর্যায়ে রাশিয়া বিশ্বের সর্বাধিক তেল উৎপাদন করে এবং প্রায় ১১ মিলিয়ন ব্যারেল প্রতিদিনের উৎপাদনে অবদান রেখেছে। এরপরে সৌদি আরব, অমেরিকা এবং ইরাক এসমূহ তেল উৎপাদনকারী দেশসমূহ।

কোন কোন দেশ তেলের সংকটে আছে? ভেনেজুয়েলা তেল উৎপাদনে একটি প্রধান দেশ হওয়ার সাথে সাথে তার অর্থনৈতিক অবস্থা সমস্যাগ্রস্ত হয়ে উঠেছে। সরকার তার আর্থিক উন্নয়নে প্রধান উৎস হিসাবে ব্যবহৃত থাকা পেট্রোলিয়াম উৎপাদনের ক্ষেত্রে বিপর্যস্ত অবস্থায় রয়েছে। নাইজেরিয়া সবচেয়ে বেশি তেল উৎপাদন করে তবে এখনও অনেক অঞ্চলে একটি নিরাপদ প্রয়োগ প্রস্তুত করতে ব্যর্থ হচ্ছে এবং এর উৎপাদন এবং বিতরণের প্রক্রিয়াটি অন্যতম দুর্দশা একটি সমস্যার মুখোমুখি হয়ে উঠেছে।

তেল সংকট সমাধান হবে কবে / তেল উৎপাদনে শীর্ষ দেশ কোনটি?

১ ব্যারেল কত লিটার – ১ ব্যারেল সমতঃ ৪২ গালন বা ১৫৯ লিটার।

Caption: oilprice.com

সবচেয়ে বেশি তেল উৎপাদনকারী দেশসমূহ । তেল উৎপাদনে শীর্ষ ১০ দেশ নিম্নলিখিত

  1. রাশিয়া
  2. সৌদি আরব
  3. অমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র
  4. ইরাক
  5. কুয়েত
  6. উজবেকিস্তান
  7. কাজাখস্তান
  8. ব্রাজিল
  9. কানাডা
  10. মেক্সিকো

এই তালিকাটি ২০২১ সালের উপর ভিত্তি করে তৈরি করা হয়েছে। তেল উৎপাদনে বিভিন্ন দেশের অবদান বর্ণনামূলক পরিবর্তনের উপর নির্ভর করে এই তালিকা সম্পাদিত হতে পারে।

আমেরিকাতে কি পরিমান তেল মজুত আছে?

আমেরিকা প্রতিষ্ঠানসমূহের তথ্য অনুযায়ী, 2021 সালের শেষ পর্যায়ে মার্চের দিকে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রায় 43 বিলিয়ন ব্যারেল তেল মজুত আছে। এটি বিশ্বে সর্বাধিক তেল মজুত এলাকা গণে গণে হিসাবে চিহ্নিত হয়ে থাকে। এছাড়াও, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র প্রতিষ্ঠানগুলি প্রতিবছর তেল উৎপাদন করে এবং বিশ্বের বেশিরভাগ দেশের মধ্যে তাদের উৎপাদিত তেল পর্যবেক্ষণে সম্পন্ন হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *