কাবুলে আত্মঘাতী হামলার দায় আইএস নিল

আফগানিস্তানের কাবুলে আত্মঘাতী বোমা হামলার দায় নিয়েছে ইসলামিক স্টেট (আইএস)। গতকাল বুধবার আফগান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বাইরে এই আত্মঘাতী বোমা হামলা হয়। এতে অন্তত ৫ জন নিহত হন ও ৪০ জন আহত হয়েছেন।

আইএসের এক মুখপত্র আমাক নিউজ এজেন্সি টেলিগ্রাম মেসেজিং অ্যাপে বলেছে, আইএসের এক সদস্য এ হামলা চালিয়েছেন। তিনি কর্মচারী ও রক্ষীদের মধ্যে গিয়ে তাঁর শরীরে বাঁধা বোমার বিস্ফোরণ ঘটান। খবর এএফপির।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী এএফপির গাড়িচালক জামশেদ করিমি জানান, আত্মঘাতী হামলাকারীকে বিস্ফোরণ ঘটাতে দেখেছেন তিনি। হামলাকারীর হাতে একটি ব্যাগ ছিল। কাঁধে ছিল রাইফেল। তিনি তাঁর গাড়ির পাশ দিয়েই হেঁটে গেছেন। লোকজনের মধ্যে গিয়ে তিনি বোমা দিয়ে নিজেকে উড়িয়ে দেন।

কাবুল পুলিশের মুখপাত্র খালিদ জাদরান বলেন, হামলায় পাঁচ বেসামরিক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন অনেকে। 

আইএসের স্থানীয় শাখা ইসলামিক স্টেট-খোরাসান (আইএসকে) নামে পরিচিত। আইএসকের দাবি, বোমা হামলায় কয়েকজন কূটনৈতিক কর্মচারীসহ অন্তত ২০ জন নিহত হয়েছেন।

দেশটির প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা আহমেদুল্লাহ মুত্তাকি বলেছেন, আত্মঘাতী বোমা হামলার সময় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে কোনো বিদেশি উপস্থিত ছিলেন না।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, জাতিসংঘ এবং পাকিস্তান ও যুক্তরাজ্যসহ বেশ কয়েকটি দেশ এ হামলার নিন্দা করেছে।

ক্ষমতায় আসার পর তালেবান পরিচালিত আফগান প্রশাসন আইএস জঙ্গিদের বিদ্রোহ মোকাবেলা করছে। বিদ্রোহীরা বিদেশিদের লক্ষ্যস্থল করছে। তারা রাশিয়া ও পাকিস্তানের দূতাবাসের পাশাপাশি চীনা ব্যবসায়ীদের ব্যবহার করা একটি হোটেলে হামলা চালিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *