অ্যাপল প্রধান নিজের বেতন কমাতে চান

অ্যাপলের শেয়ারের দাম কমায় প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা টিম কুকের এ বছর বার্ষিক বেতন–ভাতা ৪০ শতাংশ কমছে। তিনি সব মিলিয়ে এ বছর প্রায় ৫১১ কোটি টাকা পাবেন।

বিবিসি অনলাইনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিনিয়োগকারীদের সমালোচনার মুখে টিম কুক নিজেই বেতন কমানোর কথা বলেছেন। কোনো প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহীর নিজের বেতন কমানোর ঘটনা খুবই বিরল। ৪০ শতাংশ বেতন কমানোর প্রস্তাব দিয়ে টিম কুক সেই বিরল প্রধান নির্বাহীদের তালিকায় নাম লেখালেন।

অ্যাপল কর্মকর্তাদের বেতনসংক্রান্ত কমিটি চলতি বছর টিম কুকের জন্য ৪ কোটি ৯০ লাখ মার্কিন ডলার বেতন নির্ধারণ করেছে।

সরবরাহে দেরি হওয়া ও বৈশ্বিক অর্থনৈতিক সংকটের কারণে গত বছর আইফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম অনেক কমে যায়।

মার্কিন অর্থবিষয়ক নিয়ন্ত্রক সংস্থায় জমা দেওয়া বিবৃতিতে অ্যাপল বলেছে, ‘শেয়ার হোল্ডারদের বক্তব্য, অ্যাপলের ব্যবসায়িক পরিস্থিতি ও টিম কুকের সুপারিশ অনুযায়ী প্রধান নির্বাহীর বেতন সমন্বয় করেছে বেতনসংক্রান্ত কমিটি।’

গত বছর টিম কুকের বেতন নির্ধারণ করা হয়েছিল ৮ কোটি ৪০ লাখ ডলার। কিন্তু বছর শেষে তিনি মোট ৯ কোটি ৯৪ লাখ ডলার পেয়েছেন। এর মধ্যে ৬ লাখ ৩০ হাজার ৬০০ ডলার তাঁর ব্যক্তিগত নিরাপত্তা বাবদ ও ৭ লাখ ১২ হাজার ৫০০ ডলার ব্যক্তিগত জেট বিমানের খরচ বাবদ দেওয়া হয়।
এই সমন্বয়ে টিম কুকের বার্ষিক মূল বেতনে কোনো পরিবর্তন আসছে না। তিনি ৩০ লাখ ডলার মূল বেতনের পাশাপাশি ৬০ লাখ ডলার পর্যন্ত বোনাস পাবেন। তবে বেতন-ভাতার অংশ হিসেবে অ্যাপল কর্তৃপক্ষ তাঁকে কী পরিমাণ শেয়ার দেবে, সে বিষয়ে বড় পরিবর্তন আসছে।

২০২২ সালে টিম কুককে ৭ কোটি ৫০ লাখ ডলারের শেয়ার দেয় অ্যাপল। এর মধ্যে অর্ধেক পুঁজিবাজারে অ্যাপলের পারফর্মের ওপর ভিত্তি করে দেওয়া হয়েছিল।

চলতি বছর তাঁকে দেওয়া শেয়ারের পরিমাণ চার কোটি ডলার কমিয়ে আনা হয়েছে। এর ৭৫ শতাংশ পুঁজিবাজারে অ্যাপলের পরিস্থিতি কেমন হবে তার ওপর নির্ভর করবে।

গত বছর টিম কুকের বেতন নির্ধারণ করা হয়েছিল ৮ কোটি ৪০ লাখ ডলার। কিন্তু বছর শেষে তিনি মোট ৯ কোটি ৯৪ লাখ ডলার পেয়েছেন। এর মধ্যে ৬ লাখ ৩০ হাজার ৬০০ ডলার তাঁর ব্যক্তিগত নিরাপত্তা বাবদ ও ৭ লাখ ১২ হাজার ৫০০ ডলার ব্যক্তিগত জেট বিমানের খরচ বাবদ দেওয়া হয়।

টিম কুকের বেতন কমানোর পক্ষে ভোট দিতে গত বছর অ্যাপলের শেয়ার হোল্ডারদের আহ্বান জানিয়েছিল শীর্ষস্থানীয় একটি বিনিয়োগকারী উপদেষ্টা সংস্থা।

ইনস্টিটিউশনাল শেয়ারহোল্ডার সার্ভিসেস (আইএসএস) নামের ওই প্রতিষ্ঠানটি অ্যাপলের শেয়ার হোল্ডারদের চিঠি দিয়ে বলেছে, টিম কুকের বেতন প্যাকেজ নিয়ে তারা ‘বিশেষভাবে উদ্বিগ্ন’। প্রতিষ্ঠানটির অভিযোগ ছিল, কুকের বেতন অ্যাপলের একজন সাধারণ কর্মীর তুলনায় ১ হাজার ৪৪৭ গুণ বেশি।

২০১১ সালে অ্যাপলের সহপ্রতিষ্ঠাতা স্টিভ জবসের মৃত্যুর কয়েক সপ্তাহ আগে প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহীর দায়িত্ব পান টিম কুক। তাঁর নেতৃত্বে প্রথম কোনো প্রতিষ্ঠান হিসেবে অ্যাপলের শেয়ারবাজারে মূল্য তিন ট্রিলিয়নে দাঁড়ায়। এর আগে প্রযুক্তিশিল্পের একটি অস্থির অবস্থার কারণে অ্যাপলের শেয়ারের মূল্য দুই দশমিক এক ট্রিলিয়নে নেমে এসেছিল।

ইনস্টিটিউশনাল শেয়ারহোল্ডার সার্ভিসেস (আইএসএস) নামের একটি প্রতিষ্ঠানটি অ্যাপলের শেয়ার হোল্ডারদের চিঠি দিয়ে বলেছে, টিম কুকের বেতন প্যাকেজ নিয়ে তারা ‘বিশেষভাবে উদ্বিগ্ন’। প্রতিষ্ঠানটির অভিযোগ ছিল, কুকের বেতন অ্যাপলের একজন সাধারণ কর্মীর তুলনায় ১ হাজার ৪৪৭ গুণ বেশি।
করোনা মহামারিতে চীনে কারখানায় লকডাউন, সরবরাহে দেরি হওয়া ও বৈশ্বিক অর্থনৈতিক সংকটের কারণে গত বছর অ্যাপলের শেয়ারের দাম ২০ শতাংশের বেশি কমে গেছে।

ফোর্বস সাময়িকীর তথ্য অনুযায়ী, ৬২ বছর বয়সী টিম কুকের ব্যক্তিগত সম্পদের পরিমাণ প্রায় ১৭০ কোটি ডলার। তিনি তাঁর পুরো সম্পদ দান করে যাওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *