অনলাইন জিডি করার নিয়ম ২০২৩ । অনলাইনে জিডি কপি ডাউনলোড করুন

আপনারা অনেকেই বলেন জিডি করতে টাকা লাগে, অনেক ঝামেলা,থানায় গেলে হয়রানি করে তাই না?এই কথা গুলো তো সব সময় শুনি। কিন্তু আজকে যদি বলি জিডি করতে থানায়ই আসতে হবে না, আপনি আপনার মোবাইলে ঘরে বসে জিডি করবেন, তো আর টাকা কাকে দিবেন। ঝামেলা নাই, নিজের মোবাইলে নিজে ঘরে বসে কিভাবে জিডি করবেন আজকে আপনাদের একেবারে এই বিষয়টি আমি দেখিয়ে দিবো যে আপনার মোবাইলে আপনি ঘরে বসে সোফায় বসে বিছানায় শুয়ে ২/৩ মিনিটে জিডি করে দিবেন। আগেই বলে দেই এই জিডি করতে আপনার কি কি লাগবে-

১। আপনার একটি অ্যান্ড্রয়েড ফোন লাগবে।

২। আপনার এন আই ডি কার্ড থাকতে হবে।

৩। আপনার একটি সচল মোবাইল নাম্বার লাগবে।

৪। আর আপনার ই-মেইল থাকতে হবে।

এই বিষয় গুলো থাকলেই আপনি ঘরে বসেই জিডি করতে পারবেন। আমার হাতে একটি অ্যান্ড্রয়েড ফোন আছে। আমি এই ফোন থেকে আপনাদের দেখিয়ে দিবো কিভাবে ঘরে বসে জিডি করতে হয়। আমি প্রথমেই গুগল প্লে স্টোর থেকে অনলাইন জিডি অ্যাপসটি ডাওনলোড করবো। তারপর যখন আপনি ওপেন করবেন নিবন্ধন এবং লগ ইন দেখতে পাবেন, তো আপনি যেহেতু নতুন তাই আপনাকে নিবন্ধন করতে হবে, নিবন্ধনের জন্য ওপেন করলেন,আপনার সর্বপ্রথম যে বিষয়টি লাগবে নিবন্ধনের জন্য সেটি হলো আপনার এন আই ডি কার্ড এর যে নাম্বারটি সেটি দিয়ে দিই।এরপরে জন্ম তারিখটি লাগবে, আমরা জন্ম তারিখটি দিয়ে দিবো।ওকে দিয়ে দিলে আপনার পরিচয়টি এখন যাচাই করবে।

সার্ভারে যে আছেন আপনার পরিচয় পত্রটি যাচাই করে দেখবেন নাম, ঠিকানা,পিতার নাম,মাতার নাম ঠিক আছে কিনা। এখন সঠিক তথ্য হলে এখানে ক্লিক করবেন।একটু সময় নেয় যদি আপনার ফেস পরিবর্তন হয়ে যায়। তখন হতাশ হবেন না একটু সময় নিবে একটু সময় নিয়ে যখন আপনি ডানে বামে বা আগে পিছে তাকাবেন হয়ে যাবে। আপনার ছবির সঙ্গে ম্যাচ হলে এরপরের কাজটি হলো আপনার মোবাইল নাম্বারটি দিতে হবে। ১১ ডিজিটের মোবাইল নাম্বারটি যে মোবাইল নাম্বারটি আপনার সচল আছে।এখন মোবাইলটি আপনার হাতের কাছে রাখতে হবে কারন এই মোবাইলে আপনার ও টি পি যাবে।মোবাইল নাম্বারের পরে একটি পাসওয়ার্ড ক্রিয়েট করতে হবে, পাসওয়ার্ডটি দিয়ে দিবো।

পাসওয়ার্ডটি দেওয়ার পরে নিশ্চিত হওয়ার জন্য আরেকবার দিতে হবে,এখন আমরা এ্যাকাউন্ট তৈরির জন্য ক্লিক করবো, ওকে প্রি রেজিষ্ট্রেশন সফল হয়েছে।আপনার মোবাইল নাম্বার এবং পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে লগ ইন করুন। এখন লগ ইন করার জন্য ব্যবহারকারি যে নাম্বারটি আগে ব্যবহার করেছিলেন সেই ফোন নাম্বারটি আবার দিতে হবে। এখন আবার পাসওয়ার্ডটি যে পাসওয়ার্ডটি ক্রিয়েট করেছেন সেটা দিতে হবে। পাসওয়ার্ডটি দেওয়ার পরে লগ ইন করবো। লগইন করলে এখন এই রেজিষ্ট্রেশন হওয়ার জন্য অটোমেটিক্যালি আপনার ঠিকানা টা চলে আসবে আপনি শুধু দেখবেন ঠিক আছে কিনা। জেলার নাম আসবে, গ্রাম আসবে, থানা, ইউনিয়ন, পোস্ট কোড সব চলে আসবে যখন এটি আপনার মিল হবে। যদি ভুল থাকে তাহলে ডান পাশের পূর্ববতী অপশনে ক্লিক করবেন। যেহেতু ঠিক আছে আমরা পরর্বতী অপশনে চলে যাই। এখানে আবার আসছে এন আই ডি কার্ড,ডেট অফ বার্থ,যথন সব ঠিক আছে কনর্ফাম করবো। নেক্সটে যাবো। এখন এখানে একটা সিগনেচার দিতে হবে।সিগনেচারটি পেয়ে যাওয়ার পরে সংরক্ষণ করবো। ওকে নেক্সটে যাবো। এখানে একটু সেভ করতে হবে। মোবাইল নাম্বার যেটা আছে সেটা, মোবাইল অপারেটর, বাংলালিংক আছে তাই বাংলালিংক দিয়ে দিচ্ছি।এখন ই-মেইল বসাতে হবে।

ই-মেইল দেওয়ার পরে পরবর্তী গেলাম। এখন যে মোবাইল নাম্বার ঔ মোবাইল নাম্বারে একটি ও টি পি গেছে,ও টি পি টি নিয়ে নিচ্ছি। ও টি পি দেওয়ার পরে আপডেট অপশনে ক্লিক করতে হবে। ও টি পি টি নেওয়ার পরে ভেরিফাইড হয়েছে এখন লগ ইন করে দিই।এখন কিন্তু আপনার রেজিষ্ট্রেশন কমপ্লিট হয়ে গেছে। এখন আমরা একটি মোবাইল হারানোর জিডি করবো,আমরা হারানোতে গেলাম। এখন আমরা দেখতে পাবো কিছু অপশন আছে।

যানবাহন,মোবাইল,মানুষ,কম্পিউটার,ডকুম্টে,কার্ডসমূহ,গহনা,অন্যান্য আছে। আমরা যেহেতু মোবাইলে যাবো,মোবাইলে ক্লিক করলাম। এখন আপনার যে মোবাইল টি হারিয়েছে তার বর্ণনা,কোন জায়গা থেকে হারিয়েছে, মোবাইলের মডেল নাম্বার, আইডি নাম্বার,কখন কোথা থেকে হারিয়েছে।তারপর পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন তথ্য আসবে, সেগুলো ফিল আপ করে সাবমিট করে দিবেন। জিডি টা কিন্তু আপনার সংশ্লিষ্ট থানায় চলে যাবে। এই জিডির তিনটি ধাপ সম্পন্ন হওয়ার পরে যখন আপনি সাবমিট করে দিলেন এরপরে আপনার জিডি যে সাবমিট হয়েছে এবং জিডির সমস্ত আপডেট আপনাকে এস এম এস এর মাধ্যমে এবং যে অ্যাপসটি ব্যবহার করেছেন সেখানে নোটিফিকেশনের মাধ্যমে আপনাকে জানানো হবে।

এতক্ষন যা দেথলেন তা একটি জিডি করার পুরো প্রসিডিওর। আপনি যদি প্রথম এবং দ্বিতীয় ধাপটি ভালোভাবে লক্ষ্য করেন আপনার যদি এখন জিডি করার প্রয়োজন না থাকে,কিন্তু আপনি যদি রেজিষ্ট্রেশন করে রাখেন তখন খুবই সল্প সময়ে অনলাইন জিডি অ্যাপস এ ডুকে আপনার মোবাইল নাম্বার এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে দ্রুত সময়ে জিডি করতে পারবেন।তাই সবাইকে বলবো এই বিষয়গুলো কিন্তু প্রয়োজন হয়। তাই রেজিষ্ট্রেশন টা অবশ্যই করে রাখবেন।এই অনলাইন জিডি আপনি বাংলাদেশের যে প্রান্তে থাকেন না কেনো যে কোনে জায়গা থেকে আপনার সংশ্লিষ্ট থানায় করতে পারবেন। তবে আপাতত বাংলাদেশের বাইরে থেকে অনলাইন জিডি করা যাবে না।

এতক্ষণ আপনাদের যে জিডির কথা বলেছি আপনার যদি কোন কিছু হারিয়ে যায়, কোন কিছু খুজে পান এই বিষয়গুলো আপনি ঘরে বসে পুলিশের সহযোগিতা ছাড়া যে কোনো প্রান্ত থেকে অনলাইনে করতে পারবেন। আর অন্যান্য কোনো বিষয় হলে আপনাকে থানায় আসতে হবে।

One thought on “অনলাইন জিডি করার নিয়ম ২০২৩ । অনলাইনে জিডি কপি ডাউনলোড করুন

  • Mar 24, 2024 at 3:50 PM
    Permalink

    জিডি নং-১০৫২, তারিখ: ১৪/০৩/২০২৪খ্রি.
    বোয়ালিয়া মেট্রোপলিটন মডেল থানা, রাজশাহী।

    Reply

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *